জনপ্রিয় টিকটক তারকা রফির মরদেহ উদ্ধার

জনপ্রিয় টিকটক তারকা শেখের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার (২৪ জানুয়ারি) ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের নেল্লোরের বাড়ি থেকেই উদ্ধার করা হয় রফি শেখের মরদেহ। খবর জি নিউজের।

হঠাৎ কীভাবে রফির মৃত্যু হলো তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে তার পরিবার। ইতোমধ্যে পুলিশ রফির মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে।

পরিবারের বরাত দিয়ে জি নিউজের খবরে বলা হয়, ঘটনার দিন প্রথমে নিজের এক বান্ধবীর সঙ্গে দেখা করেন রফি। এরপর নারায়ণ রেড্ডি পেটায় ওইদিন বিকেলে নিজের বেশ কয়েকজন বন্ধুর সঙ্গেও দেখা করেন রফি। নারায়ণ রেড্ডি পেটায় বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করে ফেরার পথে রফিকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। রক্তাক্ত অবস্থাতেই বাড়ি ফেরেন রফি। ওই ঘটনার সঙ্গেই রফির মৃত্যুর সম্পর্ক রয়েছে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

প্রসঙ্গত, ভার‌ত চীনের সীমান্ত সমস্যার পরেই বেশ কয়েকটি চীনা অ্যাপ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। সেই তালিকায় ছিল জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া টিকটক। সে সময় মোট ৫৯টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ভারত।

ভারতের মতো জনবহুল দেশে টিকটকের অসংখ্য ব্যবহারকারী থাকলেও হঠাৎ অ্যাপ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বাণিজ্য ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। টিকটক বন্ধ করে দেওয়াকে সমর্থন জানালেও বড়সড় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েন টিকটকাররা। 

এই অ্যাপের সৌজন্যেই রাতারাতি খ্যাতির শিখরে পৌঁছেছেন বেশ কিছু কমবয়সী সাধারণ ঘরের ছেলে-মেয়ে। টিকটক তারকা হিসাবে সুপরিচিত মঞ্জুল খট্টর, অভনিত কৌর, জন্নত জুবিররা। তাই তো করোনার এই মহামারিতেও ভারতে আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে টিকটক।

কন্যা সন্তানের মা হয়েছেন আনুশকা

98294090_3239832566067665_2650912140747079680_n.jpg

অপেক্ষার প্রহর ঘনিয়ে অভিনেত্রী আনুশকা শর্মার কোলজুড়ে এসেছে সন্তান। কন্যা সন্তানের মা হয়েছেন বলিউডের জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। 
আজ সোমবার বিকেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই সুখবর জানিয়েছেন আনুশকার স্বামী ভারতীয় ক্রিকেট তারকা বিরাট কোহলি
সেইসাথে এই ক্রিকেট তারকা আরও জানান, মা ও সন্তান দুজনেই এখন সুস্থ আছেন।
প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে দুই অঙ্গনের এই দুই তারকার মধ্যে প্রেমের সখ্যতা গড়ে উঠে। এরপর ৪ বছর প্রেমের পর ২০১৭ সালের ১১ ডিসেম্বর ইতালির তাসকেনি প্রদেশের ফ্লোরেন্সে এক ঐতিহ্যবাহী রিসোর্টে বিরাট কোহলির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন আনুশকা শর্মা। এটি ছিল ২০১৭ সালে বলিউডের সবচেয়ে আলোচিত বিয়ের অনুষ্ঠান।

scroll to top